img

অগ্নিদগ্ধ হয়ে প্রাণ হারানো ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাচেষ্টা মামলার প্রধান আসামি অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার পক্ষে মামলা পরিচালনা করায় স্থানীয় এক নেতাকে বহিষ্কার করেছে আওয়ামী লীগ।

কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে আজ বৃহস্পতিবার সকালে ফেনীর কাজীরবাগ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট কাজী বুলবুল সোহাগকে বহিষ্কার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রহমান বিকম।

আবদুর রহমান বিকম বলেন, ‘কেন্দ্রের নির্দেশে বুলবুলকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। সিরাজ-উদ-দৌলাসহ অন্য আসামিদের আইনি সহায়তা দেওয়ায় তার বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, গত ৬ এপ্রিল ফেনীর সোনাগাজীতে পরীক্ষাকেন্দ্রের ভেতর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহার রাফির (১৮) গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে হত্যাচেষ্টা চালায় দুর্বৃত্তরা। সোনাগাজী পৌর এলাকার ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসাকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। নুসরাত ওই মাদ্রাসা থেকেই আলিম পরীক্ষা দিচ্ছিলেন।

পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত কক্ষ থেকে ছাদে ডেকে নিয়ে কয়েকজন বোরকাপরা নারী পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ করেছেন ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা।

তারা জানান, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগে দায়ের করা মামলা তুলে না নেওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে। এ তথ্য ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্থানীয় পুলিশকেও জানিয়েছিলেন ওই শিক্ষার্থী। তার অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় ওইদিন বিকেলে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের ১০২ নম্বর কক্ষে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়।

সেখানে রাফির অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। পরে মঙ্গলবার অস্ত্রোপচার করার পর রাফি শঙ্কামুক্ত নন বলে জানান চিকিৎসকরা। বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মারা যান রাফি।

এই বিভাগের আরও খবর


সর্বশেষ