img

তিন তালাক প্রথা মুসলিম ধর্মাবলম্বী নারীদের জন্য এক আতঙ্কের নাম, এ নিয়ে আইন কঠোর করতে ভারতের লোকসভায় নতুন একটি বিল উত্থাপিত হয়েছে। উত্থাপিত ওই বিলে তিন তালাককে বেআইনি ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। আর নতুন আইন অনুযায়ী তিন তালাক দিলে অভিযুক্ত ব্যক্তির তিন বছরের কারাদণ্ড হবে।

২০১৭ সালের তিন তালাক নিয়ে অধ্যাদেশ জারি করে লোকসভা। লোকসভায় আগেই পাস হয়েছিল তিন তালাক বিল। কিন্তু ওই বিল আটকে যায় রাজ্যসভায়। ওই বিলের বেশ কিছু বিষয় নিয়ে আপত্তি ছিল বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দলের। এই বিলে তিন তালাক দিলে তিন বছরের কারাদণ্ডের যে বিধান রাখা হয়েছিল, সেটা নিয়ে আপত্তি তোলেন অনেকে। তাদের যুক্তি ছিল, কারাদণ্ড হলে ভরণপোষণের টাকা কিভাবে দেয়া হবে। একই সঙ্গে জামিনের ব্যবস্থা রাখার দাবিও জানায় একাধিক দল।

লোকসভায় পাস হওয়া বিলে সংশোধনীগুলো নিয়ে তৈরি করা হয় অধ্যাদেশ। এবার সেই অর্ডিন্যান্সের ভিত্তিতেই আনা হল নতুন বিল। এই বিলে তিন তালাককে বেআইনি ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। নতুন আইন অনুযায়ী তিন তালাক দিলে তিন বছরের কারাদণ্ড হবে।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনার পরও নিয়মিত চলছিল তালাক। এমনকি হোয়াটস অ্যাপেও তালাক দেওয়া হচ্ছিল। তবে বিরোধী দল কংগ্রেসের বক্তব্য নতুন বিল সাংবিধানিক অধিকারে হস্তক্ষেপ। নতুন বিলটি ৪২ দিনের মধ্যে সংসদে পাস করাতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর


সর্বশেষ