Ads
img

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় পাঁচ মাস বয়সী শিশুসন্তানকে হত্যার দায়ে বাবার মৃত্যুদণ্ড হয়েছে। একই সঙ্গে তাঁকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের নয় বছর পর জেলা ও দায়রা জজ মো. জুলফিকার আলী খান আজ রোববার দুপুরে এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম মো. মোস্তফা (৩৯)। তাঁর বাড়ি শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গজারী জুড়ান গ্রামে। তিনি কৃষিকাজ করতেন। বর্তমানে তিনি পলাতক। তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১১ সালের ২০ মে বিকেলে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মুঠোফোন কেনা নিয়ে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার একপর্যায়ে মোস্তফা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের একমাত্র ছেলেশিশুকে ঢেঁকির সঙ্গে আছাড় মারেন। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুটির মৃত্যু হয়। তাঁর স্ত্রীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা তাঁকে আটক করেন। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে শিশুর লাশটি উদ্ধার এবং তাঁকে গ্রেপ্তার করে। ওই রাতেই তাঁর স্ত্রী রোজিনা বেগম বাদী হয়ে বকশীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন জামালপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) নির্মল কান্তি ভদ্র। আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. কামাল।

নির্মল কান্তি ভদ্র বলেন, দুই মাস তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ২৩ জুলাই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. মোস্তফার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। এই মামলায় নয়জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আজ রায় দিলেন।

জিরোআওয়ার২৪/এমএ

এই বিভাগের আরও খবর