Ads
img

বিশ্ব ফ্যাশনের অন্যতম তীর্থস্থান হিসেবে বিবেচনা করা হয় লন্ডনকে। এবার সেই দেশের ফ্যাশনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে বেছে নেওয়া হয়েছে একজন বলিউড অভিনেত্রীকে। আর এই সুখবরটি বয়ে এনেছেন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাস। এরই মধ্যে যিনি নিজের প্রতিভা ও ফ্যাশন ভাবনায় মাত করেছেন হলিউডের মতো প্রভাবশালী জায়গাও।

সম্প্রতি ব্রিটিশ ফ্যাশন কাউন্সিলের (বিএফসি) দূত নির্বাচিত হওয়া বলিউড ও হলিউডের জনপ্রিয় মুখ প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আগামী এক বছর ব্রিটিশ ফ্যাশনের নানা কার্যক্রমে অংশ নেবেন, যার মাধ্যমে সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে ফ্যাশনে। বিশ্বখ্যাত ফ্যাশন ম্যাগাজিন ‘ব্রিটিশ ভোগ’ এই খবর নিশ্চিত করেছে।

অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নিজের টুইটার ও ইনস্টাগ্রামেও খবরটি শেয়ার করেছেন তাঁর ভক্তদের সঙ্গে। টুইটারে এই অভিনেত্রী জানিয়েছেন নিজের প্রতিক্রিয়াও, ‘আমি খুবই সম্মানিত বোধ করছি বিএফসির অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ইতিবাচক পরিবর্তনে কাজ করার সুযোগ পেয়ে। আগামী বছর আমি যত দিন লন্ডনে থাকব, তত দিন এই পদ সামলাব। দ্রুত আমরা কিছু চমৎকার উদ্যোগ নিয়ে কাজ করব। আশা করি, এই কাজে আপনাদের পাশে পাব।’

‘ভোগ’–এর তথ্যমতে, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ব্রিটিশ ফ্যাশনে নতুন কিছু উদ্যোগ নিয়ে কাজ করবেন, যা মূলত ফ্যাশনের জন্য ইতিবাচক ফলাফল বয়ে আনবে। আগামী বছর প্রিয়াঙ্কাকে দেখা যাবে দ্য ফ্যাশন অ্যাওয়ার্ডস–২০২০, লন্ডন ফ্যাশন ইউকসহ নানা অনুষ্ঠানে। একই সময়ে প্রিয়াঙ্কা বিখ্যাত ব্রিটিশ ফ্যাশন ব্র্যান্ডগুলোর পাশাপাশি সম্ভাবনাময় তরুণ ডিজাইনারদের সঙ্গেও কাজ করবেন বলে শোনা যাচ্ছে।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বলেন, ‘আমি নিয়মিত বারবেরি, ভিভিয়েন ওয়েস্টউড ও স্টেলা ম্যাকার্টনি ব্র্যান্ডের দিকে যেমন নজর রাখি, তেমনি আমাকে গর্বিত করে লন্ডনে ভারতীয় ডিজাইনার আশীষ ও কৌশিকের কাজও। আসলে লন্ডন এমন এক শহর, যেখানে বহু সংস্কৃতির মানুষের মিশ্রণ রয়েছে। আর সেখান থেকে সেরাটাই সব সময় বেছে নিয়েছে মানুষ।’

জিরোআওয়ার২৪/এমএ

এই বিভাগের আরও খবর