Ads
img

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের আড়তদারেরা গতকাল সোমবার থেকে আলু বিক্রি বন্ধ রেখেছেন। আজ মঙ্গলবারও সেখানে আলু বিক্রি হয়নি। পাইকারি বিক্রেতারা জানিয়েছেন, কৃষি বিপণন অধিদপ্তর পাইকারিতে আলুর দাম কেজিপ্রতি ২৫ টাকা নির্ধারণ করে দিলেও তাদের কিনতে হচ্ছে বেশি দামে। হিমাগার থেকে নির্ধারিত দামে আলু পাওয়া যাচ্ছে না।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তর গত ৭ অক্টোবর আলুর দাম হিমাগার পর্যায়ে কেজিপ্রতি ২৩ টাকা, পাইকারি বাজারে ২৫ টাকা ও খুচরা বাজারে ৩০ টাকা নির্ধারণ করে দেয়। এর আগে বাজারে আলুর কেজিপ্রতি দর ৫৫ টাকায় ওঠে, যা এ স্মরণকালের মধ্যে সর্বোচ্চ। দাম নির্ধারণ করে দেওয়ার পর আলুর দর কেজিপ্রতি ৫ টাকা কমেছে। কিন্তু নির্ধারিত দর কার্যকর হয়নি।

কারওয়ান বাজারের আলুর আড়তের ব্যবসায়ীরা বলছেন, রাজশাহী, বগুড়া ও মুন্সিগঞ্জে হিমাগার থেকে সরকারের নির্ধারিত দামে আলু বিক্রি হচ্ছে না। ২৫ টাকার জায়গায় আলু কিনতে হচ্ছে ৩৭ থেকে ৩৮ টাকা কেজিতে। তাই ফড়িয়া ব্যবসায়ীরা ঢাকায় আলু নিয়ে আসছেন না।

আজ দুপুর দুইটার দিকে কারওয়ান বাজারের আলুর আড়তে গিয়ে দেখা যায়, আড়তে আলু নেই বললেই চলে। বিক্রেতারা অলস বসে আছেন। পাইকারি বিক্রেতা মো. বিল্লাল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘২৫ টাকা দামে আলু বিক্রি করা আমাদের পক্ষে সম্ভব না। কারণ কেজি প্রতি আলু আমাদের কিনতে হয় ৩৭ থেকে ৩৮ টাকায়। লোকসান দিয়ে তো ব্যবসা করা যায় না। গতকাল (সোমবার) থেকে আলু বিক্রি বন্ধ আছে।’

এদিকে আলুর বাজারে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে করণীয় নির্ধারণে আজ একটি মতবিনিময় সভা ডেকেছে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর। আজ বেলা তিনটার দিকে খামারবাড়িতে অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে এই সভা আয়োজন করা হয়। সভায় আলু ব্যবসায়ী ও হিমাগার মালিকদের থাকার কথা রয়েছে।

জিরোআওয়ার২৪/এমএ

এই বিভাগের আরও খবর